“লিটারেচার, ল্যাংগুয়েজ এন্ড টেকনোলজি ইন ইংলিশ স্টাডিজ” শীর্ষক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

“লিটারেচার, ল্যাংগুয়েজ এন্ড টেকনোলজি ইন ইংলিশ স্টাডিজ” শীর্ষক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

0 286

প্রযুক্তির প্রতিনিয়ত উন্নয়ন ও অগ্রগতির ধারা লেখক , শিল্পী ও বুদ্ধিজীবীদের মেধা মনন ও সৃজনশীলতার বিকাশে, শারীরিক মানসপটেই শুধু নয়, কাল্পনিক জগতেও গভীর প্রভাব বিস্তার করছে বলে বক্তারা অভিমত প্রকাশ করেন। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজী বিভাগ আয়োজিত “দি মেশিন ইন দি গার্ডেন ঃ লিটারেচার, ল্যাংগুয়েজ এন্ড টেনোলজি ইন ইংলিশ স্টাডিজ” শীর্ষক জাতীয় সম্মেলন এর উেেদ্বাধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।

বিশ্বায়ণের এ যুগে বৈশ্বিক শিক্ষার উন্নয়ন, উদ্ভাবন, গণমাধ্যম, ভাষা, সাহিত্য, চলচ্চিত্র, গণযোগাযোগ, শিল্পকলা, সংস্কৃতি ও সর্বোপরি মানব উন্নয়নে প্রযুক্তির ভূমিকার উপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব আরোপ করেছেন।
বক্তারা আরো বলেন, প্রযুক্তি নিজেই ইংরেজীর মত একটি ভাষা এবং এ দু’টি ভাষা একে অপরের পরিপূরক। প্রযুক্তি আমাদের প্রাত্যহিক জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য ও অপরিহার্য উপাদান হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে এবং আমাদের শ্রেনীকক্ষেও প্রযুক্তি তার অবস্থান নিশ্চিত করেছে, সেটা যে বিষয়ের শ্রেণী কক্ষই হোক না কেন।

তারা আরো বলেন, ‘সংযোগ’ ও ‘সমকেন্দ্রিকতা’ এ শব্দ দু’টি আমাদের জীবনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। নতুন নতুন প্রযুক্তির অগ্রগতি ও যোেগাযোগ কৌশলসমূহের ক্রমবিকাশ আমাদের জীবনব্যবস্থাকে প্রতিনিয়ত বদলে দিচ্ছে। অঅমাদেরকে এ পরিবর্তনশীল পরিস্থিতির সাথে খাপ খাইয়ে চলতে শিখতে হবে।

দিনব্যাপী আয়োজিত এ সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্বদ্যিালয়ের ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক ড. ফকরুল আলম। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউসুফ এম ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ- উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ গোলাম রহমান ও মার্কিন দূতাবাসের এমেরিকান সেন্টারের সংস্কৃতি বিষয়ক কর্মকর্তা জর্জ মেসথোস উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক সুশীল কুমার দাস ও সম্মেলনের আহবায়ক ও বিভাগীয় প্রধান উম্মে কুলসুম।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত নামী-দামী পন্ডিত ব্যক্তিত্ব , শিক্ষাবিদ ও শিক্ষার্থীবৃন্দ এ সম্মেলনে তাদের নিজ নিজ পেপার ও ধারনাসমূহ উপস্থাপন করেন। দিনব্যাপী এ সম্মেলনে ১৬ টি সরকারি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪২ জন উপস্থাপকের ৩৩ টি পেপার উপস্থাপন করা হয়।

NO COMMENTS

Leave a Reply